skip to Main Content
service@akhidigital.com
অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার 5 টি সেরা উপায়
অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার 5 টি সেরা উপায়

অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার 5 টি সেরা উপায়

অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার 5 টি সেরা উপায়

বর্তমানে ইন্টারনেটে টাকা ইনকাম করার চাহিদা দিনকে দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই করোনা কালীন সময় বহু লোক ঘরের ভেতর বসে রয়েছে তারা ঘরের ভেতর থেকে কিছু অতিরিক্ত অর্থ ইনকাম করার উপায় খুঁজছেন কিন্তু ভালো কোন উপায় পাচ্ছেন না তাদের জন্য আজকে আমরা আলোচনা করব অনলাইন ভিত্তিক পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ ইনকাম সম্পর্কে পাঁচটি অনলাইন ইনকাম সম্পর্কে জেনে নিন অনলাইন ইনকাম খুব সহজ এটি আপনাকে দীর্ঘমেয়াদী একটি সাপোর্ট প্রদান করে যারা নতুন তারা অনলাইনে কোন বিষয়ের উপর কাজ করলে কেমন হবে কি করে অর্থ পাওয়া যাবে এসব বিষয় নিয়ে তারা খুব চিন্তিত থাকে।

কিভাবে টাকা হাতে পাবেন? এখন বর্তমান সময় অর্থ হাতে পাওয়া খুব সহজ কারণ হচ্ছে এখন ডিজিটাল মানি ট্রান্সফার সিস্টেম রয়েছে সারাবিশ্বে আপনি পেপাল অথবা মাস্টার কার্ড কিংবা সরাসরি আপনার ব্যাংকে পেমেন্ট নিতে পারবেন সুতরাং পেমেন্ট নিয়ে কোনো চিন্তার বিষয় না আসল ব্যাপারটি হল কাজ করার যে আপনি কোন বিষয়ের উপর কাজ করবেন সেটি হচ্ছে মূল ব্যাপার তো এখানে আমরা পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করব

১. নাম্বার ওয়ান ওয়েব ডিজাইন করে অর্থ উপার্জন

ওয়েব ডিজাইন করে অনেকে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার আয় করতেছে web-design একটি বড় সেক্টর, ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য কত সময় লাগতে পারে ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য কতদিন আপনাকে ট্রেনিং করতে হয় মূলত ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য আপনাকে বেশিদিন ট্রেনিং করতে হবেনা আপনি 1 থেকে 2 বছরের ভিতরে ওয়েব ডিজাইনের ট্রেনিং সম্পন্ন করতে পারবেন আপনি প্রথমে কিছু এইচটিএমএল সিএসএস সম্পর্কে কিছু ধারনা রাখুন এইচটিএমএল এবং সিএসএস তারপরে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস এ যেতে পারেন কোন কোডিং ছাড়াই ওয়ার্ডপ্রেসে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় খুব সহজে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ডিজাইন করার ক্ষেত্রে বেশি কোডিং নলেজ প্রয়োজন নেই। এইচটিএমএল সিএসএস পিএইচপি তারপর ওয়ার্ডপ্রেস।

২. নাম্বার টু গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অর্থ উপার্জন।

গ্রাফিক্স ডিজাইনের বহু ক্যাটাগরি রয়েছে যেমন লোগো ডিজাইন ব্যানার ডিজাইন ভিজিটিং কার্ড ডিজাইন পোস্টার ডিজাইন ডিজাইন ডিজাইন ডিজাইন সহ আরো অনেক বহু প্রকার রয়েছে গ্রাফিক ডিজাইনের সেক্টরে আপনি যেকোনো একটি সেক্টর এর উপর আপনার নিজের দক্ষতা তৈরি করুন তারপর দেখবেন প্রচুর কাজ পাবেন আপনি অনলাইনে তো আসুন জেনে নেই গ্রাফিক ডিজাইন শেখার জন্য কত সময় লাগতে পারে মূলত এটি নির্ভর করে আপনার ক্রিয়েটিভিটির উপর তবে আনুমানিক আপনি এটি এক বছর থেকে দুই বছরের ভিতর কমপ্লিট করতে পারবেন গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে আপনাকে কোন কোন সফটওয়্যার প্রয়োজন হবে গ্রাফিক ডিজাইন শেখার জন্য আপনাকে প্রথমে ফটোশপ জানতে হবে তারপর ইলাস্ট্রেটর জানতে হবে ফটোশপ এবং ইলাস্ট্রেটর এই দুটি সফটওয়ারের সাহায্যে আপনি প্রফেশনাল গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারবেন।

কাজ কোথায় পাবেন আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেস ফাইবার মার্কেটপ্লেস সহ আরও অনেক বড় বড় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে আপনি আপনার গ্রাফিক ডিজাইন সেল করতে পারেন অথবা গ্রাফিক্স ডিজাইন রিলেটেড জবে এপ্লাই করতে পারেন জব এপ্লাই করার মাধ্যমে যখন ক্লায়েন্ট আপনার কাজটি দিবে তখন আপনার কাজটি ক্লাইন্টের রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী করে দিবেন।

৩.নাম্বার থ্রি আর্টিকেল রাইটিং করে অর্থ উপার্জন।

বর্তমান বিশ্বে আর্টিকেল রাইটার এর চাহিদা দিনকে দিন বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে কারন প্রতিটা ওয়েবসাইটে প্রতিটা কোম্পানিতে আর্টিকেল লেখার প্রয়োজন পড়ে তাই আর্টিকেল একটি বড় সেক্টর অনলাইন ভিত্তিক টাকা ইনকাম আর্টিকেল লেখার জন্য আপনাকে কি কি শিখতে হবে আর্টিকেল লেখার জন্য আপনাকে জাস্ট মাইক্রোসফট ওয়ার্ড নামে একটি সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হবে এবং সেটিতে টাইপ প্র্যাকটিস করতে হবে তারপর যখন আস্তে আস্তে প্রাকটিসের মাধ্যমে টাইপিং স্পিড বৃদ্ধি পাবে যখন আপনার ভালো টাইপিংয়ে স্পিড তৈরি হবে তখনই আপনি আর্টিকেল লেখালেখি শুরু করবেন

আর্টিকেল রাইটিং একটি বিশাল ডিমান্ড সেক্টর প্রচুর অপরচুনিটি রয়েছে কাজ পাওয়ার বিশ্বব্যাপী সমস্ত ওয়েবসাইট বা কোম্পানিতে তাদের আর্টিকেল লেখার প্রয়োজন হয় আপনি আপনার গল্প জীবনের গল্প কোন নাটক কোন ইতিহাস যে কোন একটি বিষয়ের উপর যদি ভাল লেখালেখির আইডিয়া থাকে তাহলে আপনি এই সেক্টর থেকে হিউজ পরিমান ইনকাম করতে পারে আর যদি আপনার আইডিয়া না থাকে তাহলে আপনি বিভিন্ন অনলাইনে আর্টিকেল লেখালেখি করে এমন ধরনের কোম্পানি পাবেন সেখান থেকে আপনি দেখে নিতে পারেন তারা কেমন ধরনের আর্টিকেল লিখেছেন কোন বিষয়ের উপর লিখেছে এই সব বিষয়ের উপর আপনি জ্ঞান অর্জন করতে পারেন অনলাইনে রিসার্চ এর মাধ্যমে তারপর নিজেকে একটি প্রফেশনাল আর্টিকেল রাইটার হিসেবে দাঁড় করাতে পারেন তাহলে দেখবেন আপনার টাকা ইনকামের মাধ্যম তৈরি হয়ে গেছে

 

4. নাম্বার নাম্বার ফাইভ ব্লগিং করে অর্থ উপার্জন

ব্লগিংয়ের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা খুবই মজাদার এটি একটি আপনাকে ব্লক করার জন্য কি কি জানতে হবে আপনাকে প্রথমে আর্টিকেল লেখা শিখতে হবে তারপর একটি ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে আপনি চাইলে ফ্রিতে ব্লগিং করতে পারেন গুগল blogger.com এ ওয়ার্ডপ্রেস blogger.com এ আপনি ফ্রিতে ব্লগিং করতে পারেন অথবা আপনি চাইলে আপনার নিজস্ব একটি ব্লগ তৈরী করে নিতে পারবেন প্রিমিয়াম একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনবেন একটি ডোমেইন কিনবেন একটি হোস্টিং কিনবেন এরপর সেখানে আপনি আপনার ব্লগ সাইটে পড়বে যদি আপনি নিজে না পারেন তাহলে খুব কম খরচে এটি আপনি একজন ফ্রিল্যান্সারকে ভাড়া করে এটি করে নিতে পারেন খুব কম খরচে একজন ফ্রিল্যান্সার আপনার জন্য একটি ব্লগ ওয়াডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করে দিবে খুবই কম খরচে

সেখানে আপনি প্রতিদিন অথবা প্রতি সপ্তাহে আপনি আর্টিকেল পোস্ট করবে গুলো যেন মানুষের উপকারে লাগে এমন ধরনের একটি বিষয় নির্বাচন করে সেখানে আর্টিকেল লেখার পরে সেখানে যখন প্রতিদিন 50 জনের বেশি ইউজার আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিট করে তখন আপনি গুগল এডসেন্স এর জন্য এপ্লাই করবেন আপনার আর্টিকেল এর ভিতর প্রদর্শন করবে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা হবে সেই বিজ্ঞাপনদাতারা পেমেন্ট দিবে তার থেকে কিছু পার্সেন্টিস আপনাকে গুগোল করি সে ক্ষেত্রে আপনাকে একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট তৈরি করতে হবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট কিভাবে তৈরি করতে হয় সে বিষয়ে আমরা পরবর্তী পোস্টে আলোচনা করব গুগল এডসেন্স আপনার ওয়েবসাইটের সংযুক্ত করতে হবে  তো আশা করি এই পাঁচটি অর্থ উপার্জন সম্পর্কে আপনার যথেষ্ট আইডিয়া হয়েছে ধন্যবাদ

5. ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম

ইউটিউবিং করে টাকা ইনকাম বর্তমানে ইউটিউব একটা জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং কোম্পানি সারা বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ ইউটিউবে তাদের ভিডিও শেয়ার করে আপনি যে কোন বিষয়ের উপরে সেটি হতে পারে রান্না হতে পারে লাইফস্টাইল বা কোন টিউটোরিয়াল যেকোনো একটি বিষয়ের উপর আপনার নিজের তৈরি করা ইউনিক ভিডিও আপলোড এবং শেয়ারের মাধ্যমে আপনি ইউটিউব থেকে প্যাসিভ ইনকাম জেনারেট করতে পারেন.

Leave a Reply

Back To Top